Support 4thPillars

×
  • আমরা
  • নজরে
  • ছবি
  • ভিডিও

  • শর্ট ফিল্ম: Unnamed

    শুভস্মিতা কাঞ্জী | 14-01-2021

    unnamed শর্ট ফিল্ম পোস্টার

    জীবনে কখনও আমরা বাধ্য হই এমন কিছুর সঙ্গে জড়িয়ে যেতে, যা কোনওদিন কল্পনাও করিনি। আর একটা সময় পর সেখান থেকে কিছুতেই বেরিয়ে আসতে পারি না। ধীরে ধীরে ক্রমশ সেটা অভ্যেস হয়ে ওঠে, বেঁচে থাকার অংশও বটে! তবে যখন এক ঝলক আনন্দ এসে ধরা দেয় তখন তাকে সম্পূর্ণভাবে গ্রহণ করতে সাধ হয়। ক্ষনিকের জন্য হলেও ভেসে যেতে ইচ্ছে করে সেই খুশির ঢেউয়ে। ঠিক যেমনটা এই শর্ট ফিল্মের নায়িকার সঙ্গে হয়। 

     

    মেয়েটি (শ্বেতা পাড্ডা) দেহব্যবসার সঙ্গে জড়িত, একটি ছেলে (হর্ষবর্ধন) তাকে নিয়ে আসে সময় কাটানোর জন্য। কিন্তু সময়ের সঙ্গে সঙ্গে তারা অপরিচিত হয়েও পরিচিত হয়ে ওঠে একে অন্যের কাছে। মেয়েটি অনাথ, তার এক কাকু তাকে মানুষ করে এবং যথাসময়ে বিয়ে দেয়কিন্তু তার স্বামী অধিকাংশ দিনই নেশাগ্রস্ত হয়ে তাকে মারধর করত, এবং অর্থের লোভে তাকে বিক্রি করত। অনিচ্ছা সত্ত্বেও মেয়েটি বিকিয়ে যেত রাতের পর রাত। কিন্তু এক সময়ে, স্বামীর অবর্তমানে সন্তানকে মানুষ করার তাগিদে এটাকেই সে পেশা বানিয়ে নেয়। ছেলেটি যখন তাকে নিতে আসে, সে ভাবে ছেলেটিও আর পাঁচটি কাস্টমারের মতো হবে। কিন্তু না। এখানেই বদলে যায় চেনা ছক। দু’জনেই কেউ কারও নাম জানে না, তবুও একে অন্যের জীবনের অনেকটা গল্প জেনে ফেলে অল্প সময়েই। তারপর? তারপর জানতে শর্ট ফিল্মটি দেখতে হবে।

     

     

     

    মেয়েটির চরিত্রে থাকা শ্বেতা দারুন অভিনয় করেছেনতথাগত যাদব সমাজের এক দারুন চিত্র তুলে ধরেছেন তাঁর লেখা এবং পরিচালিত এই শর্ট ফিল্ম ‘আননেমড’-এ। দেহব্যবসায়ীরা সমাজের একটা অংশ, যাদের অনেকেই নিজের লালসা চরিতার্থ করতে ব্যবহার করেন, কিন্তু অন্য সময় ভুলে থাকেন এদের উপস্থিতি। আর এই মানুষগুলো অধিকাংশ সময়ই অনিচ্ছা সত্ত্বেও এই পেশায় এসে জড়িয়ে পড়েন, ভুলে যান নিজেদের মতো করে বাঁচতে। কিন্তু কখনও কখনও এমন কেউ আসে যে সেই সুযোগ করে দেয়, যেমন এই শর্ট ফিল্মে দেখানো ছেলেটি।

     

    আমাদের জীবনে আমরা এমন অনেক মানুষের সঙ্গে মিশি বা আলাপ হয়, যাদের হয়তো নামটাও জানতে পারিনা, কিন্তু তাদের প্রতি এক মুগ্ধতা, ভাল লাগা তৈরি হয়। মনে হতে থাকে, তার সঙ্গে কথা চলুক। কিন্তু তা সম্ভব হয় না। নিয়ম মেনে আবার আলাদা হয়ে যাই। নতুন পথে চলতে থাকি সেই ক্ষণিকের স্মৃতি নিয়ে।

     


    শুভস্মিতা কাঞ্জী - এর অন্যান্য লেখা


    এই 2020 সালেও সমাজের চোখে নব বিবাহিত বরের মৃত্যু মানেই কনে অপয়া রাক্ষসী

    ও সব বাবুদের রোগ, তাদের হয়। বুঝলেন?

    29 জুন ভারতীয় সরকার 59টি চিনা অ্যাপের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করল, কিন্তু এতে কার কতটা লাভ আর ক্ষতি

    গোটা ছবিতে উঠে এসেছে এক নারীর ঘুরে দাঁড়ানোর গল্প।

    যতটা সম্ভব কার্বন নির্গমন কমাতে হবে। তবেই আগামী দিনে যে বিপদ অপেক্ষারত তাকে এড়িয়ে চলা সম্ভব হবে। 

    শর্ট ফিল্ম: Unnamed-4thpillars

    Subscribe to our notification

    Click to Send Notification button to get the latest news, updates (No email required).

    Not Interested