Support 4thPillars

×
  • আমরা
  • নজরে
  • ছবি
  • ভিডিও

  • শর্ট ফিল্ম: the punishment for happiness

    শুভস্মিতা কাঞ্জী | 10-03-2021

    the punishment for happiness এর পোস্টার

    খুশির জন্য মানুষ কত কী-ই না করতে পারে! আর সেটা যদি সন্তানের খুশি হয় তাহলে মায়েরা বোধহয় নিজের সবটুকু উজাড় করে দিয়েও সেই খুশিটা তাদের সন্তানকে এনে দিতে চায়। এমনই এক গল্পের কথা বলে রাজওয়ালের ছবি "দ্য পানিশমেন্ট অফ হ্যাপিনেস। '

     




    ছবিতে দেখা যায়, বিট্টু (অভয় প্রজাপতি) একটি বছর পাঁচ-ছয়ের বাচ্চা ছেলেকে। সে তার মায়ের (মন্নত শর্মা) সঙ্গে এক বস্তিতে থাকে। কাজ বলতে রাস্তা কিংবা লোকের বাড়ি থেকে ভাঙাচোরা জিনিস বা অদরকারি জিনিস এনে তা বিক্রি করে কোনও মতে দিন কাটানো। ছোট বিট্টু স্কুলে যায় না। সে তার মায়ের সঙ্গেই কাজ করে। অন্যান্য দিনের মতোই সে সেদিনও কাজে বেরিয়েছিল, তখন ফিরতি পথে দেখে একটি মেয়ে রাস্তায় দাঁড়িয়ে নানান অঙ্গভঙ্গি করে ছবি তুলছে। বিট্টু রাস্তার এক পাশে দাঁড়িয়ে তাকে নকল করে। ঘরে এসে একটা ছেঁড়া জুতোতে কাঠি লাগিয়ে সেটাকে ফোন আর সেলফি স্টিক বানিয়ে সেলফি তোলে। তার সেই খেলায় তার মাও সঙ্গ দেয়। বিট্টুর মা জানে তার ছেলে একটা সেলফি তুলতে চায়, কিন্তু তাদের ক্ষমতা নেই ফোন কেনার। তাই বলে কি সন্তানের ইচ্ছে সে পূরণ করবে না? কিন্তু ছোট বিট্টু রোজ তার কাজ এবং কথার মাধ্যমে তার মাকে মনে করিয়ে দেয় এই ইচ্ছের কথা, "আমি বাবার মতো ছবি তুলব'। তখন বিট্টুর মা একটা ফন্দি আঁটে। সে কীভাবে তার সন্তানের স্বপ্ন এবং ইচ্ছে পূরণ করে সেটাই দেখা যায় এই গল্পে। 
     

    আরও পড়ুন : শর্ট ফিল্ম: Rubaru

    বিট্টুর চরিত্রে অভয় বেশ ভাল। কিন্তু গল্পের বুনন আরও শক্ত হতে পারত। তবে বিট্টুর ছোট ছোট পাওনায় হাসিগুলো দর্শকের মুখেও হাসি ফুটিয়ে তুলবে। এই গল্পটি শুধুই স্বপ্নপূরণের নয়, এখানে দেখা যায় বিট্টুর আরও একটি গুণ। সে গরিব হলেও অসৎ না। সবটা মিলিয়ে বেশ অন্যরকম শর্ট ফিল্মটি। দর্শকদের মোটের উপর ভালই লাগবে।


    শুভস্মিতা কাঞ্জী - এর অন্যান্য লেখা


    ও সব বাবুদের রোগ, তাদের হয়। বুঝলেন?

    বাঙালির শ্রেষ্ঠ উৎসব যেন মারণ উৎসব না হয়, তার চেষ্টা পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দাদেরই করতে হবে।

    রসিকতা নয়। কলকারখানা বন্ধ, আকাশ ও সড়কপথে যান চলাচল অনেক কম। সব মিলিয়ে সারা পৃথিবীতেই দূষণের মাত্রা

    সবারই কি তবে একটা করে ক্ষমতাশালী সোর্স রাখতে হবে বিপদ থেকে উদ্ধার পাওয়ার জন্য?

    উনি তো পুজো-আচ্চা করেন, প্রদীপ জ্বালান, গোমূত্রও খেয়েছেন, ওঁকে করোনা ধরবে না।

    এরা যত বেশি পড়ে, তত বেশি জানে, তত কম মানে

    শর্ট ফিল্ম: the punishment for happiness-4thpillars

    Subscribe to our notification

    Click to Send Notification button to get the latest news, updates (No email required).

    Not Interested