Support 4thPillars

×
  • আমরা
  • নজরে
  • ছবি
  • ভিডিও

  • কলকাতার ব্যান্ড ক্রসউইন্ডস আন্তর্জাতিক সম্মানে সম্মানিত হল

    শুভস্মিতা কাঞ্জী | 10-01-2021

    ক্রসউইন্ডস ব্যান্ডের সদস্যরা

    কলকাতার অন্যতম জনপ্রিয় ব্যান্ড ক্রসউইন্ডস সম্প্রতি গ্রাসরুট গ্র্যামি জেপিএফ মিউজিক অ্যাওয়ার্ড 2020 পেল। এবং সেই আনন্দের খবর সোশাল মিডিয়ায় সকলের সঙ্গে ভাগ করে নেন ব্যান্ডের সদস্য-সদস্যারা।

     

    17700 অ্যালবাম, এবং 230000 গানের মধ্যে ক্রসউইন্ডস দুটি বিভাগে পুরস্কার পেয়েছে। তাদের ফিরে দেখাঅ্যালবামটি জন্য সেরা এশিয়ান অ্যালবাম হিসেবে পুরস্কৃত হয়েছে। সেরা আন্তর্জাতিক গ্রুপ হিসেবেও সেরা হয়েছে তারা। এই সম্মানে সম্মানিত হয়ে ক্রসউইন্ডস-এর একাধারে গিটারিস্ট, গায়ক এবং সঙ্গীত রচয়িতা বিক্রমজিৎ ব্যানার্জি সোশাল মিডিয়ায় জানান, তাঁরা এই সম্মান পেয়ে ভীষণ আনন্দিত এবং গর্বিত। এতগুলো গান, অ্যালবামের মধ্যেও যে তাঁরা 4200 জন বিচারকের মন জিতে নিতে পেরেছেন, তাতে তো গর্ব হওয়ারই কথা। 

     

    জেপিএফ অথবা জাস্ট প্লেন ফোকএকটি অনলাইন গোষ্ঠী, যা এফএমসি উপদেষ্টা বোর্ডের সদস্য ব্রায়ান অস্টিন হুইটনি তৈরি করেছিলেন প্রায় 51500 জন গান রচয়িতা এবং শিল্পীদের নিয়ে। উদ্দেশ্য ছিল বিভিন্ন স্তরে যে বহু শিল্পীরা গান নিয়ে কাজ করছেন তাঁদের সঙ্গে পরিচিত হওয়া এবং তাঁদের পরিচিতি দেওয়া।

     

    ক্রসউইন্ডস-এর পথ চলা শুরু হয় 1990 সালে। তারা প্রধানত লোকসঙ্গীত এবং রক সঙ্গীত গায়। বিভিন্ন কলেজে, দেশে বিদেশে তারা নানা সময় অনুষ্ঠান করেছে। শুধু তাই নয়, ক্রসউইন্ডস বিভিন্ন আন্তর্জাতিক দলের সঙ্গেও কাজ করেছে, এবং খ্যাতি অর্জন করেছে। ব্যান্ডের সদস্যরা হলেন, বিক্রমজিৎ ব্যানার্জি, চন্দ্রানী, রতনজিৎ। তাঁদের যে আলব্যাম সেরা এশিয়ান অ্যালবাম হিসেবে সম্মানিত হল, তার কয়েকটি গান হল- প্রাণ কৃষ্ণ ও’, ‘আজ ধানের খেতে’, ‘তবু আমার’, ‘অন্ধকারের অজানা’, ‘সকলই তোমারই ইচ্ছাপ্রভৃতি। আন্তর্জাতিক পুরস্কারে সম্মানিত হয়ে ব্যান্ডের সদস্যরা বর্তমানে খুশির জোয়ারে ভাসছেন। তবে, আরও অনেক নতুন ব্যান্ডের কাছে সাফল্যের নয়া দৃষ্টান্ত স্থাপন করল ক্রসউইন্ডস ব্যান্ড।

     


    শুভস্মিতা কাঞ্জী - এর অন্যান্য লেখা


    আমাদের বদলের নেপথ্যে থাকে আমাদের চারপাশের মানুষ এবং পরিস্থিতি সেই কথাই মনে করাল এই ছবি।

    প্রায় সারাদিনটাই গল্পের বই পড়াতেই আটকে আছি!

    পরবর্তীকালে পুলিশ এসে তাকে নিয়ে যায়। কিন্তু যাওয়ার সময় পুলিশের সামনেই হুমকি দিয়ে যায়

    আমাদের রিল লাইফ আর রিয়েল লাইফ মিলেমিশে একাকার হয়ে যায় অনেক সময়।

    ডেভিড এবং তাঁর স্ত্রী মানুষ করে চলেছেন ২২০জন সন্তানকে, আগলে রেখেছেন ওদের সস্নেহে।

    যদি অতিবর্ষন এবং বন্যার সংখ্যা বাড়তে থাকে, তবে প্রাণহানির সঙ্গে ফসল ক্ষতির পরিমাপও বাড়বে।

    কলকাতার ব্যান্ড ক্রসউইন্ডস আন্তর্জাতিক সম্মানে সম্মানিত হল-4thpillars