Support 4thPillars

×
  • আমরা
  • নজরে
  • ছবি
  • ভিডিও

  • বাংলায় ভোট, পর্ব 23- প্রাণের চেয়েও ভোট দামী?

    4thpillars ব্যুরো | 17-04-2021

    সুদীপ্ত সেনগুপ্তের সঙ্গে আলোচনায় সাংবাদিক রজত রায় এবং চিকিৎসক সুনন্দন বসু।

    করোনা পর্বের শুরু থেকে ধরলে সব থেকে ভয়াবহ অবস্থা এখন দেশে। ভোটের প্রচারে সর্বোচ্চ স্তরের নেতা থেকে শুরু করে কর্মী কেউই বিধি মানছেন না। এখনও চার দফায় ভোটেই অনড় নির্বাচন কমিশন। ভোটের জন্য কত মূল্য দিতে হবে সাধারণ মানুষকে? এই নিয়েই www.4thpillars.com গত 16 এপ্রিল (শুক্রবার) একটি আলোচনার আয়োজন করেছিল। এই আলোচনায় সুদীপ্ত সেনগুপ্তের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিক রজত রায় এবং চিকিৎসক সুনন্দন বসু। While Covid situation is at its worst since outbreak, Election Commission carries on with protracted voting schedule in West Bengal Assembly Election 2021.



    1) এ কথা নতুন করে বলার প্রয়োজনই পড়ে না, তবু করজোড়ে বলতে হচ্ছে, মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক। তার সঙ্গে অন্যান্য সুরক্ষাবিধি, শারীরিক দূরত্ব, স্যানিটাইজার কিংবা হ্যান্ড-ওয়াশ দিয়ে বারবার হাও ধোওয়া ইত্যাদি মেনে চলা আবশ্যক।

    2) রাজনৈতিক নেতাদের কাছে এই পরিস্থিতিতে একটু দায়িত্বশীল আচরণ প্রত্যাশা করেছিল সবাই৷ কিন্তু নেতাদের মুখেই মাস্ক নেই, তারা আবার তাদের কর্মী-সমর্থকদের কী বার্তা দেবেন। রাজনৈতিক সভা-সমিতিগুলোয় দূরত্ববিধির কোনও বালাই নেই।

    3) রাজনৈতিক নেতা এবং ধর্মীয় গুরুরা দায়িত্বজ্ঞানহীন কাজকর্ম করছেন। কেউ রাজনীতির দোহাই দিয়ে, কেউ ধর্মের দোহাই দিয়ে করোনার ভয়াবহতাকে অস্বীকার করতে চাইছেন। গত বছর তাবলিঘি জামাতের জমায়েত নিয়ে এত কথা হল। অথচ, তারপরেও হরিদ্বারে কুম্ভমেলার পুণ্যস্থানে যেরকম ভিড় দেখা যাচ্ছে, তাতে আশঙ্কিত হতে হয়।

    4) একত্রে এতজন মানুষ মিলে গঙ্গায় স্নান করছেন। এর চেয়ে বড় সুপার স্প্রেডার হটস্পট আর হতে পারে না। বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী, মেজ-সেজ নেতারা ক্রমাগত কুসংস্কার ছড়াচ্ছেন। বোঝাই যাচ্ছে তাদের মধ্যে কোনও বিজ্ঞান চেতনা নেই। নেতারা তাদের কর্মী-সমর্থকদের নিয়মবিধি মেনে চলার অনুরোধ করলে, জনমানসে তার একটা ইতিবাচক প্রভাব পড়তে পারত। কিন্তু, তা আর হচ্ছে কই।

    5) যে হারে সারা দেশে, বিশেষত এই রাজ্যে করোনা সংক্রমণ বাড়ছে, তাতে নির্বাচন কমিশনও তার দায় এড়াতে পারে না। যেসব নেতারা সভামঞ্চ থেকে অপবিজ্ঞান প্রচার করছেন, তাদের কেন সেন্সর করা হচ্ছে না? কেন নিয়ম করা হচ্ছে না যে, এমন অপবিজ্ঞান, কুসংস্কার ছড়ালে আর নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে দেওয়া হবে না?

    6) শুধু রাজনৈতিক নেতা আর ডাক্তারদের দোষ দিয়ে লাভ নেই। সাধারণ মানুষকেও এই ব্যাপারে সচেতন হতে হবে। অনেকে এখনও মূর্খ কালিদাসের মতো আচরণ করছেন। নিয়মবিধি না মেনে রোগ বাঁধিয়ে তারপর হাসপাতালে বেড পাচ্ছি না কেন বলে লাভ নেই। আগে থেকেই সচেতন হোন। ডাক্তাররাও সদা তৎপর। তবে তারাও মানুষ, এটা অন্যান্যদের বুঝতে হবে।

    7) গত বছর করোনা নিয়ে তবু কিছু সচেতনতা দেখা গিয়েছিল। এবারে সে সব উধাও। মিডিয়াতেও ভোটের খবরের বাইরে এই নিয়ে কোনও খবর বা আলোচনা নেই৷ এখন মিডিয়াকেও একটা দায়িত্বশীল ভূমিকা নিতে হবে। তবে, আরও একবার সাধারণ মানুষকে স্মরণ করিয়ে দিতেই হবে, রাজনৈতিক নেতা বা মিডিয়া বলুক বা না বলুক, নিজেদের কিন্তু সাবধান থাকতেই হবে। যাবতীয় সুরক্ষাবিধি মেনে চলতে হবে।


    4thPillars ব্যুরো - এর অন্যান্য লেখা


    জীবনে অন্য ক্ষেত্রে, অন্য পরিচয়ে সফল, প্রতিষ্ঠিত হলেই কি রাজনীতিতে আসা যায়?

    বাংলায় বিভিন্ন প্রান্তে আমপানের তাণ্ডবের টুকরো কিছু অংশ www.4thpillars.com এ।

    নীতীশ বিরোধিতাকে উচ্চগ্রামে নিয়ে গেলেও চিরাগ পাসওয়ান তাঁর মোদী-স্তুতি অব্যাহত রাখছেন।

    গণতন্ত্রের এই বীভৎস বিকৃতির পরিণাম আদৌ কি ভেবে দেখেছেন কেউ?

    আজকের ভারতে চরম দক্ষিণপন্থী শাসনে যেন সেই ইউটোপিয়া বাস্তবায়িত হচ্ছে!

    বাংলায় ভোট, পর্ব 23- প্রাণের চেয়েও ভোট দামী?-4thpillars

    Subscribe to our notification

    Click to Send Notification button to get the latest news, updates (No email required).

    Not Interested