Support 4thPillars

×
  • আমরা
  • নজরে
  • ছবি
  • ভিডিও
  • Out of box-4thpillars
    অধার্মিক হওয়ার অনেক জ্বালা, ধার্মিকের দায় শুধু নিঃশর্ত আনুগত্যেই।  

    মন্ত্রীর চোখেও মেয়েরা পরের ধন!

    মুখ্যমন্ত্রী হয়েও নারীবিদ্বেষী কদর্য আক্রমণের শিকার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।  

    পিছু হটল না ক্যাডবেরি

    সমকামিতার ইঙ্গিতপূর্ণ বিজ্ঞাপন তুলে নেবে না জানিয়ে সদর্থক বার্তা ক্যাডবেরির।  

    কৃষ্ণ করলে লীলা আর...

    বিখ্যাত ব্যক্তিদের নিয়ে কুচ্ছো করবার প্রবণতা তো বাঙালির আজকের নয়।  

    গুরু ও ভক্ত-দাস নিয়ে গড়া সমাজই ভারতের ভবিতব্য; ​​​​​​সেখানে উন্নয়ন, ন্যায়, জনকল্যাণ হয়ে যাচ্ছে গৌণ

    আধুনিক রাষ্ট্র,কল্যাণ, উন্নয়ন আর ন্যায়ের তত্ত্ব আর তথ্য দিয়ে সে সমাজকে বোঝা যাবে না।  

    করোনা ও দূষণের জোড়া থাবায় কমবে মানুষের আয়ু

    তবে যতক্ষণ দেহে আছে প্রাণ, প্রাণপণে পৃথিবীর সরাব জঞ্জাল এই অঙ্গীকার যেন আমরা ভুলে না যাই।  

    রামচন্দ্র যখন পরাজিত

    যারা আমায় মনের মধ্যে রাখতে পারে না, তারাই চিৎকার করে আমার ভক্ত বলে পরিচয় দেয়।  

    সতী হওয়ার চেয়ে বরং ডাইনি হওয়া ভাল

    সমাজ নির্মিত ‘খুনি' হিসাবে একাকী রিয়াকে যে অসম লড়াইটা লড়তে হচ্ছে, সেই লড়াইয়ে সংহতি থাকবে।  

    অসুখ হয়েছে ব্যস! যোদ্ধা আবার কীসের?

    ব্যক্তি রোগীকে যোদ্ধায় পর্যবসিত করা মানে ভাবনা বা আইডিয়ার স্তরে একটা সর্বনাশের বীজ বপন করা।  

    পৃথিবীর সব রঙ মুছে ফেলে এ কীসের আয়োজন?

    অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে অকপট মতামত জানাচ্ছে আজকের নারী। সেই মতামতে রয়েছে রামধনুর রঙের মতোই অপার বৈচিত্র।  

    একান্তই ভক্তনির্ভর তাঁর ঈশ্বর

    রবীন্দ্রনাথের লেখা গানে সত্যের জয়গান গুরুত্বপূর্ন স্থান অধিকার করে রয়েছে।  

    রাজনীতির জমি দখলের যুদ্ধ এখন আকাশে

    শুধুই কি উন্মাদনা, জনারণ্য আর আবেগ? মানুষের রুজিরুটিও তো এসব মেঠো সভা সমাবেশের সঙ্গে যুক্ত ছিল  

    এক সেকুলার লেখকের মৃত্যুদণ্ড ও এক অমর স্বপ্ন

    বশিষ্ঠ রামের হাতে মিষ্টি (প্রসাদ?) দিলেন দারাকে দেওয়ার জন্য  

    দলের পুলিশ না জনগণের পুলিশ?

    পুলিশকে গণতান্ত্রিক শাসনের অঙ্গ হতে গেলে, জনগণের সঙ্গে পুলিশের সম্পর্ক কী হবে এই প্রশ্নটা বড়ই জরুরি  

    দীর্ঘতমা ঋষি: নারীর স্বাতন্ত্র্য হরণের এক নাম

    কে তবে হরণ করে নিল নারীর স্বাতন্ত্র্য, পুরুষের মতো একই ভাবে বাঁচার অধিকার?  

    রুশ দেশের মোড়লমশাই ও লকডাউনে নারী

    আমাদের ছোটবেলায় জন্মদিনে বই দেওয়ার প্রথা ছিল  

    এক দিন বের হব বলেই আজ ঘরে বন্দি

    অভীক রায়ের কোয়ারেন্টাইনে থাকাকালীন একটি লেখা  

    বিচারপতি সকাশে দুই কবি

    একালের এক বিচারপতির সভায় পূর্বকালের কবিরা মিলে গেলেন, এ আজও বড় সৌভাগ্যের।  

    ‘তব ঘৃণা যেন তারে তৃণসম দহে’

    ঘৃণা করি রবীন্দ্রভারতীর সেইসব প্রত্যক্ষদর্শী ছাত্রছাত্রীদের যারা ‘নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক’ থেকে বিবৃত্ত  

    গালাগালই তো ক্ষমতার ভাষা, বাচ্চারা তাই শিখছে

    আগে সমাজ নিজেকে প্রশ্ন করুক কেন যৌন সম্পর্কসূচক শব্দের মধ্য দিয়েই ক্ষমতার দর্প ঘোষণা করতে হয়?  

    মুক্তমনে বিরোধী যুক্তি

    বিচারবুদ্ধিহীন ফাঁপা আবেগ নয়, চাই বিষয়ের উপরে সঠিক ধারনা ও দখল।